Wix vs WordPress: এসইও – এর জন্য কোনটা ভাল?

Wix vs WordPress : উইক্স এবং ওয়ার্ডপ্রেস দুটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট প্লাটফর্ম। ওয়েব টেকনোলোজি ইনফরমেশন প্রোফাইলার টুল বিল্টইথের মতে, উইক্স প্লাটফর্ম এর মাধ্যমে ৪.৫ মিলিয়ন ওয়েবসাইট বিল্ড করা হয়েছে, যেখানে ওয়ার্ডপ্রেস ২৮ মিলিয়নেরও বেশি ওয়েবসাইটের বিল্ড ম্যাটেরিয়াল এর সাথে সংযুক্ত রয়েছে।
তাদের মধ্যে মূল পার্থক্য হ’ল উইক্স একটি ওয়েবসাইট বিল্ডিং প্লাটফর্ম এবং হোস্টেড সলিউশন, যেখানে ওয়ার্ডপ্রেস শুধুমাত্র একটি ওপেন-সোর্স কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস)।
আপনার ওয়েবসাইট ডিজাইনের ক্ষেত্রে উইক্স এবং ওয়ার্ডপ্রেসের মধ্যে যেকোন একটি বেছে নিতে চাইলে, সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় আপনার ভাবা উচিত কোনটি এসইওর পক্ষে ভাল।
এই পোস্টে, আপনি  আপনার ওয়েবসাইট ডিজাইনের জন্য সঠিক প্লাটফর্ম বেছে নিতে আমরা কিছু আকর্ষণীয় তথ্য এবং টিপস সহ কোনটি এসইও তে ভাল এবং এদের মধ্যে ভালো-মন্দ ফিচার নিয়ে আলোচনা করব।

উইক্স -এর Argument : Wix vs WordPress

উইক্স একটি আধুনিক ও আকর্ষণীয় ওয়েবসাইট তৈরির অন্যতম সহজ প্ল্যাটফর্ম হিসাবে শুরু হয়েছিল। তবে উইক্স দিয়ে ডিজাইন করা প্রত্যেকটি ওয়েবসাইটের নিয়ন্ত্রণ তারা নিজেরা রাখত বলে ইউজাররা প্রথম দিকে উইক্স বর্জন করা শুরু করে।
কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে তারা ওয়েবসাইট এর এক্সেস ছাড় দিতে শুরু করে এবং বাড়তি ফিচার সহ কিছু সুবিধা প্রদান করার মাধ্যমে আবারও এটি জনপ্রিয় হতে শুরু করে।
এরপর থেকে উইক্সের জনপ্রিয়তা বাড়ার সাথে সাথে, এই কোম্পানিটি আরো বেশকিছু জিনিষের প্রতি নজর দেন। তারমধ্যে এসইও টুল বা ওয়েবসাইট র‍্যাংকিং টুল অন্যতম। যখন কোন ওয়েবসাইট প্লাটফর্ম এসইও টুল নিয়ে মানুষকে বাড়তি সুবিদা প্রদান করে তখন যে কেও তা গ্রহণ করতে বাধ্য।  নিম্নে উইক্স এসইও সক্ষমতার কয়েকটি উদাহরণ দেওয়া হল:

  • ডিফল্ট ইউআরএল কাঠামো (Default URL structure) সংশোধন করার ক্ষমতা, সাব-ডিরেক্টরি নাম কাস্টমাইজ করতে, সম্পাদনা করতে, মুছতে বা ইউআরএলগুলিতে একটি বাড়তি Symptoms যুক্ত করতে এবং এমনকি সম্পূর্ণ ফ্ল্যাট ইউআরএল কাঠামো তৈরি করার ক্ষমতা রাখে উইক্স।
  • 301 Redirect এর মাধ্যমে অটোম্যাটিক সাইটম্যাপ আপডেট, ম্যাটা  ট্যাগ জেনারেট এবং আপডেট করতে পারে।
  • ওয়েবসাইটে কোন রকম রোবট / বট ভিজিটর বা যেকোন অ্যাটাক কে ভিজ্যুয়ালাইজেশন করতে পারে।
আরও পড়ুন –   ব্যান্ডউইথ কি? আপনার ব্লগের জন্য কত ব্যান্ডউইথ প্রয়োজন?

আগে এইসস্ত কাজগুলো করতে এবং ওয়েকসাইটকে অপটিমাইজ /সেফ রাখতে প্রচুর থার্ড পার্টি প্লাগিং বা এপ ব্যবহার করতে হত যা উইক্সে সাধারণত করতে হয়না।
আপনি যদি এসইওতে নতুন হন বা এই শর্তাদি সম্পর্কে অপরিচিত হন তবে উইক্স থেকে বিস্তারিত জানুন এখানে

এই সম্পর্কিত আরও পড়ুন -   ব্যাকলিংক (Backlink‌) কি? ব্যাকলিংক তৈরি করার সহজ উপায়

উইক্স এসইও খারাপ দিক:

উইক্স এসইওর অনেক বৈশিষ্ট্য রয়েছে, তার মধ্যে নিম্নে কয়েকটা দেওয়া হল:

  1. উইক্স এসইওর ক্ষেত্রে বেশ কিছু অপ্রয়োজনীয় লিংক গঠন করেন যা খুব একটা প্রফেশনাল না। এবং প্রত্যেকটি লিংক এর মধ্যে একটি # দেখানো হয় যা অনেকটা আনপ্রফেশনাল। এবং উক্ত লিংকটি জাভাস্ক্রিপ্টের মাধ্যমে রিডিরেক্ট করা হয়ে, যা সার্চ ইঞ্জিনের ক্রয়েলবিলিটি এবং ইনডেক্সিং সঠিকভাবে হয়না।
  2. উইক্সের আরো বড় একটি সমস্যা হল এটিতে কাস্টম কোড এড করা যায়না। যেমন কাস্টম এইচটিএমএল এলিমেন্ট এড করার কোন অপশন এটার মধ্যে উন্মুক্ত করা নেই।
  3. এটিতে কোড অপটিমাইজেশন করার বাড়তি কোন অপশন নাই। এর ফলে ওয়েবসাইটের গতি অনেকটা হ্রাস পায়।

ওয়ার্ডপ্রেস এর Argument : Wix vs WordPress

ওয়ার্ডপ্রেস সর্বপ্রথম আআবিষ্কৃত ওয়েব সাইট সলিউশন গুলোর মধ্যে একটি যা সাইট তৈরি এবং রান করা তুলনামূলকভাবে সহজ করে তুলে। এটি একটি ওপেন সোর্স প্রোগ্রাম যা ইন্টারনেট কমিউমিটির মাধ্যমে তৈরিকৃত।
এর মূল কার্যকারিতা হল এটি বিনামূল্যে, তবে বেশিরভাগ আধুনিক সাইটের ফাংশনগুলির জন্য আপনাকে প্রিমিয়াম প্লাগিন ব্যবহার করতে হবে এবং তার জন্য অর্থ প্রদান করতে হবে।
এই প্লাগইনগুলি সমস্ত ধরণের কাজ সম্পাদন করার জন্য সাইটের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে এবং আপনি কীভাবে কাস্টমভাবে এসইও টুলগুলো অ্যাক্সেস করবেন সেগুলিও। এসইও কে বিবেচনায় নেওয়ার সময় আপনার কোথায় নজর দেওয়া উচিত সেই টুলগুলোও ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে যাচাই করে নেয়া যায়।
এছাড়াও ইন্টারনেট দুনিয়ায় ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারী ব্যাপক। যার ফলে আপনি যেকোন সমস্যায় পড়লে বিভিন্ন ফোরাম থেকে হেল্প পাবেন যা অন্য কোন প্লাটফর্ম থেকে পাবেন না।

ওয়ার্ডপ্রেস এসইও খারাপ দিক :

  1. ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন গুলো বিভিন্ন থার্ড পার্টি কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান বানিয়ে থাকে তাই মাঝে মাঝে এই প্লাগিন গুলো ওয়েবসাইটে সঠিকভাবে কানেক্টেড হয় না। যদিও ইয়োস্ট (Yoast) প্লাগিন হ’ল ওয়ার্ডপ্রেসের সর্বাধিক জনপ্রিয় এসইও টুল, তবে এছাড়াও আরও অনেকগুলি রয়েছে।
  2. এই প্লাগিন গুলো যেমনটা দ্রুত কাজ করে এবং মাঝে মাঝে এর জন্য ব্যপক ক্ষতিও হয়ে যেতে পারে। যেমন- একাধিক  প্লাগিন ব্যবহারের ফলে সাইটের বিভিন্ন প্রবলেম দেখা দেয় সেই সাথে বিভিন্ন সময়ে নরমাল আপডেটের মাধ্যমে সাইটের ক্ষতিও হয়।
  3. তবে বিভিন্ন প্রিমিয়াম প্লাগিন ব্যবহারের ফলে ওয়েবসাইটের কোন সমস্যা দেখা দিলে সাথে সাথেই ডেভেলপারের সাথে যোগাযোগ করে তা সম্পাদন করে নেয়া যায়।
আরও পড়ুন –   ব্যাকলিংক (Backlink‌) কি? ব্যাকলিংক তৈরি করার সহজ উপায়

Wix vs WordPress for SEO: Compared

নিম্নে উইক্স এবং ওয়ার্ডপ্রেস এসইও এর বেসিক কম্পারিজন দেখানো হল:

এই সম্পর্কিত আরও পড়ুন -   ব্যাকলিংক (Backlink‌) কি? ব্যাকলিংক তৈরি করার সহজ উপায়
Features WordPress Wix
Title Tags Yes Yes
Meta Descriptions Yes Yes
H1-H6 Tags Yes Yes
XML Sitemaps Yes Yes
Alt Tags Yes Yes
301 Redirects Yes Yes
No Index Tags Yes Yes
Schema Markup Yes Yes
Mobile Friendly Yes Yes
Connect GSC Yes Yes
Connect GA Yes Yes
Connect Bing Webmaster Tools Yes Yes

আপনি যখন আরো  প্রফেশনাল এবং উন্নতমানের এসইও জগতে প্ররবেশ করবেন তখন আরো উন্নতমানের ফিচার গুলোর পার্থক্য দেখা যাবে।
এই মুহুর্তে, ওয়ার্ডপ্রেসের এসইও টুল খুব হাতের মুঠোয় এবং সহজভাবে কাস্টমাইজড করা যায়। তবে ছোট ব্যবসা বা নরমসল ব্লগিং ওয়েবসাইটের জন্য যাদের শুধুমাত্র প্রাথমিক এসইও কার্যকারিতা প্রয়োজন, তাদের জন্য উইক্স এবং ওওয়ার্ডপ্রেস উভয় প্লাটফর্মই যথেষ্ট।

ভাল লাগলে ব্লগটি শেয়ার করুন-
Suhanur Rahman
Suhanur Rahman

সোহানুর রহামান, বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ওয়েব-ডেভেলপার। ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং বিল্ডিং এবং কাস্টমাইজেশনে সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা আছে। এছাড়াও - ওয়ার্ডপ্রেস, জাভা, HTML5, CSS3, PHP, JavaScript, অ্যাডোব ফটোশপ -এ সমৃদ্ধ জ্ঞান রয়েছে। 

Articles: 20

Newsletter Updates

Enter your email address below and subscribe to our newsletter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *